৩ কার্তিক ১৪২৬, শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ , ৩:১০ পূর্বাহ্ণ

ঈদ যাত্রায় অভ্যন্তরীন রুটে বাড়তি ৬৫টি ফ্লাইট

বিডিএসনিউজ২৪.কম

প্রকাশিত : ১১:৫১ এএম, ৮ জুন ২০১৮ শুক্রবার

ঈদ যাত্রায় অভ্যন্তরীন রুটে বাড়তি ৬৫টি ফ্লাইট

ঈদ যাত্রায় অভ্যন্তরীন রুটে বাড়তি ৬৫টি ফ্লাইট

সড়কপথে দূর্ঘটনা এবং ভোগান্তি নিত্য নৈমিত্তিক ব্যাপার, আর ঈদ মৌসুমে বাড়তি ঝক্কিতো থাকেই। এসব ঝামেলা এড়াতে আকাশপথকেই বেছে নিচ্ছেন অনেকে। সময়ও বাঁচে। 

প্রতিবছর ঈদ যাত্রায় ভোগান্তি কমাতে অর্থাৎ যাত্রীদের অতিরিক্ত চাপ সামলাতে সরকারের বিশেষ উদ্যোগে বাড়ানো হয় ট্রেন বা বাসের সংখ্যা। শুধু ট্রেন বা বাসই নয়, যাত্রীদের চাপ সামলাতে বাড়ানো হচ্ছে আকাশ পথের এয়ারলাইন্সও। এয়ারলাইন্সগুলোর পক্ষ থেকে বাড়ানো হয়েছে ফ্লাইটও।

ঈদের জন্য অভ্যন্তরীন রুটে এয়ারলাইন্সগুলো বাড়তি ৬৫টি ফ্লাইট সংযুক্ত করলেও এক মাস আগেই প্রায় ৯০ শতাংশ টিকিট এরই মধ্যে বিক্রি হয়ে গেছে। 

ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের ডিএম ট্যুর অ্যান্ড ট্রাভেল্স এর প্রোপাইটর আবু সাইদ বলেন, ৭ জুন থেকে যশোর, সৈয়দপুর, বরিশাল এবং রাজশাহী রুটে অতিরিক্ত ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে। এছাড়াও সিডিউল অনুযায়ী ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স প্রতিদিন ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে ছয়টি, যশোরে দুইটি, কক্সবাজারে দুইটি, সৈয়দপুরে দুটি, সিলেট ও রাজশাহীতে একটি এবং সপ্তাহে তিনটি করে ফ্লাইট পরিচালনা করবে বরিশালে।

এয়ার স্প্যান লিমিটেডের রিভার্ভেশন এন্ড টিকেটিং এক্সিকিউটিভ আরিফ শেখ জানান, টিকেটের চাহিদা অনেক বেশি, এয়ার লাইন্স কোম্পানী যাত্রীদের ঠিকমত টিকেট দিতে পারছে না, তাই টিকেটের দাম একটু বেশি।

অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট পরিচালনাকারী সংস্থাগুলোর তথ্য অনুযায়ী এয়ারলাইন্সগুলো ভাড়া বাড়িয়েছে ১২০ থেকে ১৫০ শতাংশ। ২ হাজার থেকে সাড়ে ৩ হাজার টাকার টিকিট বিক্রি হচ্ছে সাড়ে ৭ হাজার হাজার টাকা পর্যন্ত। তারপরেও টিকিট নেই।

 
বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ জানান, ভাড়া কত হবে তা নির্ধারণ করা হয় মার্কেটের উপর। যদি চাহিদার তুলনায় টিকেট কম থাকে, তাহলে স্বভাবতই টিকেটের দাম বেড়ে যায়। 

অন্যান্য এয়ারলাইন্সের তুলনায় বিমান বাংলাদেশের টিকেটের দাম তুলনামূলক কম বলেও জানান তিনি।

রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ছাড়া আর তিনটি বেসরকারি এয়ারলাইন্স ফ্লাইট পরিচালনা করছে।