৩ কার্তিক ১৪২৬, শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ , ৩:২৬ পূর্বাহ্ণ

ঈদ সেলামিও হারাচ্ছেন তারেক রহমান

বিডিএসনিউজ২৪.কম

প্রকাশিত : ০৫:০৪ পিএম, ৮ জুন ২০১৮ শুক্রবার | আপডেট: ০৫:০৫ পিএম, ৮ জুন ২০১৮ শুক্রবার

ঈদ সেলামিও হারাচ্ছেন তারেক রহমান

ঈদ সেলামিও হারাচ্ছেন তারেক রহমান

ঈদকে সামনে রেখে নিজেদের অস্তিত্ব জানান দিতে শেষ একটি ধামাকাসূলভ মিছিল-মিটিং ও আন্দোলন কর্মসূচির জন্য নেতাদের আহ্বান জানিয়ে ব্যর্থ হয়েছেন লন্ডনে পলাতক তারেক রহমান। জানা গেছে, নেতা-কর্মীদের আন্দোলন বিমুখতা নিয়ে চরম খেপেছেন তারেক রহমান। নেতা-কর্মীদের ব্যর্থতার জন্য বিদেশি বন্ধুদের দেওয়া ঈদ সেলামি থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন তারেক রহমান।

বিএনপির এক গোপন সূত্র জানিয়েছে, ৫ জুন রাতে তারেক লন্ডন থেকে টেলিফোন করে মির্জা ফখরুল, রিজভী আহমেদ, মওদুদ আহমেদসহ একাধিক সিনিয়র নেতাদের অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করেন। তারেক বলেন, আপনাদের আন্দোলন করতে হবে না। হাতে চুড়ি পরে বসে থাকুন। আন্দোলন বাদ দিয়ে মসজিদে গিয়ে নেসাব করুন। আপনাদের পদে বসানোটা ভুল হয়েছে। আপনাদের জন্য ঈদ সেলামি মিস হয়ে যাচ্ছে। আন্দোলনের নামে সৌদি আরব থেকে টাকা আসার কথা।

কিন্তু তার আগে সৌদি আরব ডেমো আন্দোলন দেখতে চায়। আপনাদের এত করে বললাম দু-চারটা মিছিল করেন, ককটেল ফুটান, দু-তিনটা গাড়িতে আগুন দেন। আপনারা তো কানো কথা কানে নেন না। এখন টাকা না পেলে আমার ঈদ হবে কেমন করে? আপনাদেরকে টাকা পাঠাতে বললে তো একেকজন অভাবের গল্প শুরু করে দেন। বিএনপির আমলে তো কম কামাই করেননি আপনারা। সেই টাকা গেল কই? আপনারা সবাই নিমকহারাম। আপনাদের প্রতারণার কারণে বেগম খালেদা জিয়া আজকে জেল খাটছেন। দেশে থাকলে আপনাদের কান ধরে চাঁন দেখাতাম।

এদিকে তারেক রহমানের এমন খারাপ ব্যবহারের বিষয়ে বিএনপির একজন সিনিয়র নেতা বলেন, তারেক রহমান আগে থেকেই বেয়াদব। সিনিয়র-জুনিয়রের জ্ঞান নেই তার। নিজের পকেট ভরার জন্য আমাদের মাঠে নেমে পুলিশের মার খেতে বলছেন। আরে ভাই! সামনে ঈদ। খামোখা ইস্যু ছাড়া আন্দোলন করে জেলে যাওয়ার কোনো মানে হয় না। পরিবার নিয়ে ঈদ করতে হবে। দূরে বসে বয়ান মারলেই নেতা হওয়া যায় না। ঠিকই চারদিক থেকে চাঁদা তুলে খাচ্ছেন তারেক রহমান। আর আমরা তো এতিমের মতো জীবন যাপন করছি। আমাদের কেউ খোঁজ নিচ্ছে না। এসব কথা বলতে বলতে অঝোরে কেঁদে ফেলেন সিনিয়র এই নেতা।