৩০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, শনিবার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ , ৮:২৭ পূর্বাহ্ণ

দেশকে উন্নত দেশের কাতারে নিতে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখুন-

বিডিএসনিউজ২৪.কম

প্রকাশিত : ১২:১১ পিএম, ২২ অক্টোবর ২০১৭ রবিবার | আপডেট: ০৩:৪৮ পিএম, ২৪ অক্টোবর ২০১৭ মঙ্গলবার

দেশকে উন্নত দেশের কাতারে নিতে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখুন-

দেশকে উন্নত দেশের কাতারে নিতে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখুন-

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা এবং সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের চেয়ারম্যান সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, স্বাধীনতাবিরোধীরা যখনই ক্ষমতায় আসে তখনই দেশকে ভিক্ষুক দেশ হিসেবে বিশ্বের বুকে দাঁড় করায়। তারা চায় আমাদের দেশ যেন সব সময় বিদেশিদের কাছে হাত পাতে। কিন্তু আওয়ামী সরকার ক্ষমতায় এসে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করেছে। গতকাল শনিবার শেখ হাসিনা যুব উন্নয়ন কেন্দ্রে জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে তিনি এ সব কথা বলেন।

 

তিনি বলেন, বাংলাদেশকে উন্নত দেশের কাতারে নিতে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখুন।

 

জয় বলেন, অনেকেই প্রশ্ন করেন স্বাধীনতার পর মালয়েশিয়া এত দ্রুত উন্নতি করলেও  বাংলাদেশ কেনো পিছিয়ে? তাদের এই প্রশ্নের উত্তর হলো— মালয়েশিয়া তাদের স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তির দলটিকে টানা ২০ বছর ক্ষমতায় রেখেছে। কিন্তু আমাদের দেশে এখন পর্যন্ত স্বাধীনতার স্বপক্ষে থাকা দলটি ১৬ বছর ক্ষমতায় থেকেছে। আর সেটাও বিচ্ছিন্নভাবে।

 

সজীব ওয়াজেদ আরো বলেন, এই প্রথম স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি আওয়ামী লীগ টানা আট বছরের বেশি সময় ক্ষমতায় থেকেছে। পরিবর্তন সবার চোখের সামনে। এখন আমরা পরিচিত অর্থনীতির উদীয়মান তারকা হিসেবে।

 

দেশবাসীর উদ্দেশে জয় বলেন, ‘আওয়ামী লীগ কেবল আট বছর ক্ষমতায়, তাতেই দেশের কী পরিমাণ উন্নতি দেখুন। আওয়ামী লীগ আরো ১০-১৫ বছর ক্ষমতায় থাকলে বাংলাদেশ উন্নত দেশ হবে।’ তিনি বলেন, ‘উন্নত বিশ্ব যখন তাদের প্রতিবেশী দেশের মানুষের বিপদে এগিয়ে আসে না; তখন আমরা এগিয়ে এসেছি। পাশের দেশ মিয়ানমারের নির্যাতিত রোহিঙ্গা নাগরিকদের জন্য দরজা খুলে দিয়েছি। আমরা তাদের সাহায্যের জন্য কারো কাছে হাত পাতিনি।’ জয় বলেন, ‘আমরা বলেছি, আমরা একবেলা খেয়ে হলেও তাদের খাওয়াবো। ১৭ কোটিকে খাওয়াতে পারলে আরো এক কোটিকেও খাওয়াতে পারব। সেটা হয়েছে আমাদের আত্মবিশ্বাসের কারণে।’

 

এ সময় উপস্থিত অ্যাওয়ার্ডিদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আশা করি তোমরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা কাউকে ভুলতে দেবে না। তোমরা ভুলবে না, পরবর্তী প্রজন্মকেও ভুলতে দেবে না। এ চেতনা বুকে আছে বলেই আজ দেশকে নিয়ে আমরা ভালো কিছু করার স্বপ্ন দেখছি। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সিআরআই ট্রাস্টি রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু, ইয়াং বাংলার আহ্বায়ক নাহিম রাজ্জাক এবং ইয়াং বাংলা ও সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের কর্মকর্তা প্রমুখ।

 

সামাজিক উন্নয়ন, সাংস্কৃতিক উন্নয়ন এবং ক্রীড়া উন্নয়ন এ তিনটি বিভাগে মোট ১০টি সংগঠনকে পুরস্কার দেওয়া হয়। সংগঠনগুলো হলো- স্বপ্নদেখো সমাজ কল্যাণ সংস্থা, বরিশাল ইয়ুথ সোসাইটি, দুর্বার ফাউন্ডেশন, কাকতাড়ুয়া, আই পজিটিভ, জুমফুল থিয়েটার (রাঙ্গামাটি), থিয়েটার মুরারি চাঁদ, সিলেট, চৌপাশ নাট্যাঞ্চল (বগুড়া), রাঙ্গাটুঙ্গি ইউনাইটেড উইমেন ফুটবল একাডেমি (রংপুর) ও হুইল চেয়ার ক্রিকেট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ।