২৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬, বৃহস্পতিবার ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ , ১২:২৮ পূর্বাহ্ণ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বঙ্গবন্ধুর বিরল অডিও রেকর্ড উপহার

বিডিএসনিউজ২৪.কম

প্রকাশিত : ০২:২০ পিএম, ২৭ মে ২০১৮ রবিবার | আপডেট: ০২:২০ পিএম, ২৭ মে ২০১৮ রবিবার

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বঙ্গবন্ধুর বিরল অডিও রেকর্ড উপহার

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বঙ্গবন্ধুর বিরল অডিও রেকর্ড উপহার

ভারত সফরের এক ফাঁকে শনিবার (২৬ মে) কলকাতার এইজিন রোডের নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বোসের পৈতৃক বাড়িতে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে অবস্থিত নেতাজি রিসার্চ ব্যুরো কর্তৃপক্ষ প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিরল এক অডিও ক্লিপ।

নেতাজির নাতি সুগত বোস এ সময় কয়েক মিনিটের ওই ক্লিপ বাজিয়ে শোনান। এতে বঙ্গবন্ধুকে বলতে শোনা যায়, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে নেতাজির সংগ্রাম ছিল আলোকবর্তিকার মতো। এ খবর দিয়েছে ভারতের দ্য হিন্দু।

সুগত বোস আরও বলেন, ‘১৯৭২ সালের ২৩শে জানুয়ারি নেতাজি রিসার্চ ব্যুরোতে এই ক্লিপ পাঠানো হয়। আমরা তখন থেকে এটি যত্নের সঙ্গে সংরক্ষণ করে রেখেছি।’

পেশায় ইতিহাসবিদ সুগত আরও বলেন, ‘আমার পিতা শিশির কুমার বোস ১৯৭২ সালের ১৭ই জানুয়ারি ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। ওই বছর ২৩শে জানুয়ারি নেতাজির জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কথা ছিল তার।’

কিন্তু বঙ্গবন্ধু নেতাজি রিসার্চ ব্যুরোতে অনুষ্ঠেয় ওই অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারেননি। তাই নেতাজি সম্পর্কে কিছু বক্তব্য রেকর্ড করে সেটি বঙ্গবন্ধু নিজের বিশেষ প্রতিনিধি ও খ্যাতনামা সমাজ ও নাট্যকর্মী নীলিমা ইব্রাহিমের মাধ্যমে ভারতে পাঠান। এই রেকর্ডিং সংরক্ষণ করা ছিল নাটাই সদৃশ স্পুলে।

সুগত বোস বলছিলেন, ‘স্পুলে থাকার কারণে, এই রেকর্ডিং-এর অস্তিত্ব সম্পর্কে অনেকে অবগত ছিলেন না। অডিও বার্তার যেই অংশে বঙ্গবন্ধু নেতাজিকে মুক্তিযুদ্ধের আলোকবর্তীকে হিসেবে আখ্যা দিয়েছিলেন, সেটি গুরুত্বপূর্ণ। এই অডিও বার্তা কয়েক মাস আগে ডিজিটালি সংরক্ষণ করা হয়। কিন্তু মান কমেনি এতটুকুও।’

এই বিরল টেপ এত বছর পর পুরষ্কার হিসেবে পেলেন বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা। উপহার পাওয়ার প্রতিক্রিয়ায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বোস যেই সংগ্রামের প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করেছেন তা মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম অনুপ্রেরণা ছিল।

সংক্ষিপ্ত সফরে নেতাজি রিসার্চ ইন্সটিটিউটে অবস্থিত জাদুঘর ঘুরে দেখেন প্রধানমন্ত্রী। নেতাজি যে কক্ষে বাস করতেন সেখানেও যান তিনি। এছাড়া জাদুঘরের সংগ্রহে থাকা আর্কাইভকৃত কিছু ফুটেজও দেখানো হয় তাকে। এর মধ্যে একটি ফুটেজে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও নেতাজি ছিলেন একই ফ্রেমে।

এছাড়া মান্দালয়ে বন্দী থাকাকালে সিল্ক কাপড়ে নেতাজির নিজের হাতে লেখা ‘আমার সোনার বাংলা’ নামে কবিতাও উপহার দেওয়া হয় প্রধানমন্ত্রীকে। শেখ হাসিনা বলেন, ‘বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বাঙালির হৃদয়ে সমসময় বেঁচে থাকবেন নেতাজি।’  সূত্র: মানবব্জমিন