৪ ভাদ্র ১৪২৬, মঙ্গলবার ২০ আগস্ট ২০১৯ , ২:৩৬ পূর্বাহ্ণ

ফোন আলাপ ফাঁস। রাজশাহীতে ককটেল বিস্ফোরণে গ্রেপ্তার বিএনপি নেতা।

বিডিএসনিউজ২৪.কম

প্রকাশিত : ০২:৪৮ পিএম, ২২ জুলাই ২০১৮ রবিবার | আপডেট: ০২:৫০ পিএম, ২২ জুলাই ২০১৮ রবিবার

রাজশাহী জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ কে এম মতিউর রহমান মন্টু ফোনে কথার বিষয়টি পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন।

রাজশাহী জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ কে এম মতিউর রহমান মন্টু ফোনে কথার বিষয়টি পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন।

 

গত মঙ্গলবার রাজশাহীতে সিটি নির্বাচনে ধানের শীষের প্রচারণা থেকে ককটেল বিস্ফোরণ করা হয়। শুরু থেকে বিএনপি এই হামলার জন্য সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের দায়ী করলেও একটি ফোন কল ফাঁস হওয়ার পর পরীস্কার হইয়ে যায় এই হামালার পিছনে বিএনপিই দায়ী।

মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে সিটির সাগরপাড়া বটতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, একটি মিছিল নগরীর সাগরপাড়া বটতলা এলাকায় আসলে হঠাৎ মিছিল থেকে ককটেল বিস্ফোরণ করা হয়। এতে ৫ জন আহত হয়। নগরীতে তখন আতঙ্কের সৃষ্টি হয়।

বিএনপির সহ দপ্তর সম্পাদক সাইফুল ইসলাম টিপু ও রাজশাহী জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ কে এম মতিউর রহমান মন্টুর মধ্যকার একটি ফোনালাপ ফাঁস হয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয় গত কাল বিকেল থেকে।

এ ফোনালাপে স্পষ্ট শোনা যায়, গতকাল শনিবার প্রকাশ হওয়া ফোনালাপে মতিউর রহমান বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা তাইফুল ইসলামের সঙ্গে কথা প্রসঙ্গে ককটেল বিস্ফোরণের বিষয়টি আনেন। তিনি তাইফুলকে ওই হামলার সঙ্গে কারা জড়িত, তা বলেন। ফোনালাপে তিনি বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক শাহীন শওকত ও জাভেদ নামের দুজনের কথা বলেছেন। এ ছাড়া নাটোর বিএনপির এক নেতার কথা বলেছেন।

রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার আজ রোববার দুপুরে তাঁর কার্যালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, মতিউর রহমান মন্টু ফোনে কথার বিষয়টি পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন।
ফোনালাপের সূত্র ধরে গতকাল দিবাগত রাত দুইটার দিকে নগরের কালুমিস্ত্রির মোড় এলাকার নিজ বাসা থেকে মন্টুকে আটক করা হয়।

তবে নগরীর বিশিষ্টজনদের মতে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ থেকে বিএনপির বেড়িয়ে আসা উচিত । এসবে জনগন তাদের আরো প্রত্যাখ্যান করবে।

উল্লেখ্য বিএনপি প্রার্থী মহানগর বিএনপির সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবু্লের বিরুদ্ধে অনেক সন্ত্রাসী কার্যকলাপের অভিযোগ রয়েছে আগে থেকেই।

ককটেল বিস্ফোরণে আহতরা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ভর্তি রয়েছে।