৪ ভাদ্র ১৪২৬, মঙ্গলবার ২০ আগস্ট ২০১৯ , ৩:১০ পূর্বাহ্ণ

মুম্বাইয়ের কাছে কলকাতাও ধরাশায়ী

বিডিএসনিউজ২৪.কম

প্রকাশিত : ১১:১২ এএম, ৭ মে ২০১৮ সোমবার

মুম্বাইয়ের কাছে কলকাতাও ধরাশায়ী

মুম্বাইয়ের কাছে কলকাতাও ধরাশায়ী

ঘুরে দাঁড়াচ্ছে মু্ম্বাই। কেননা আইপিএলে বাজেভাবে শুরু করে কামব্যাক করার সুমধুর অতীত ইতিহাস রয়েছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের। তা থেকেই অনুপ্রেরণা নিয়ে চলতি মৌসুমেও প্রত্যাবর্তনের আশা জাগাচ্ছে মুম্বাই। প্রথম ৮ ম্যাচে মাত্র ২ জয় পাওয়া মুম্বাই পেলো টানা দ্বিতীয় জয়। ঘরের মাঠে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে ১৩ রানে হারিয়েছে রোহিত শর্মার দল।
 
মুম্বাইয়ের করা ১৮১ রানের জবাবে নির্ধারিত ২ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬৮ রান করতে পেরেছে কলকাতা। মৌসুমের প্রথম ফিফটি করেও দলকে জয় এনে দিতে পারেননি রবিন উথাপ্পা। নিতিশ রানার সাথে উথাপ্পার তৃতীয় উইকেট জুটির সময় মনে হচ্ছিল সহজেই জিতে যাবে কলকাতা। একপর্যায়ে ৪৮ বলে মাত্র ৭১ রানের প্রয়োজন ছিল তাদের।
 
১৩তম ওভার থেকেই ম্যাচে ফেরে মুম্বাই। ৬ চার এবং ৩ ছক্কার মারে ৩৫ বলে ৫৯ রান করে সাজঘরে ফেরেন উথাপ্পা। পরের ওভারেই তার পিছু পিছু ফিরে যান ২৭ বলে ৩১ রান করা নিতিশ রানাও। পরে আন্দ্রে রাসেল এবং সুনিল নারিন কিছুই করতে পারেননি। ২৬ বলে ৩৬ রান করে অপরাজিত থেকে দলের পরাজয় দেখেন অধিনায়ক দিনেশ কার্তিক।
 
মুম্বাইয়ের পক্ষে ব্যাট হাতে ঝড়ো ইনিংস খেলার পর বল হাতেও সাফল্য কুড়ান হার্দিক পান্ডিয়া। ৪ ওভারে মাত্র ১৯ রান খরচায় নিয়ে নেন ২টি উইকেট। জিতে নেন ম্যাচসেরার পুরষ্কার। এছাড়া ১টি করে উইকেট নেন মায়াঙ্ক মারকান্দে, ক্রুনাল পান্ডিয়া, জসপ্রিত বুমরাহ এবং মিচেল ম্যাকক্লেনঘান।
 
এর আগে মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়েতে টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নামে স্বাগতিকরা। ব্যাট করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে ৮৯ রান যোগ করেন দুই ওপেনার সুর্যকুমার যাদব এবং এভিন লুইস। এরপর হার্দিক পান্ডিয়া ও ক্রুনাল পান্ডিয়া দলের স্কোরটাকে ১৮০ উপরে নিয়ে যান।
 
টানা চতুর্থ ম্যাচে মুম্বাই একাদশের বাইরেই থাকেন বাংলাদেশি কা