৩১ ভাদ্র ১৪২৬, সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ , ৬:২৪ পূর্বাহ্ণ

সিনহার নামে আসছে সরকার বিরোধী বই, নেপথ্য জামাত ও কামাল গং

বিডিএসনিউজ২৪.কম

প্রকাশিত : ০৯:৫০ পিএম, ১১ আগস্ট ২০১৮ শনিবার | আপডেট: ০২:২৩ পিএম, ১২ আগস্ট ২০১৮ রবিবার

সিনহার নামে আসছে সরকার বিরোধী বই, নেপথ্য জামাত ও কামাল গং

সিনহার নামে আসছে সরকার বিরোধী বই, নেপথ্য জামাত ও কামাল গং

এস, কে সিনহার নামে আসছে সরকার বিরোধী নতুন বই। বইয়ের লেখক ড. কামাল  গং, নেপথ্যে জামাতের অর্থায়ন। 

 

সরকারের বিরুদ্ধে নতুন বই বের হচ্ছে সাবেক প্রধান বিচারপতি এস এক সিনহা’র নামে। ইতিমধ্যে এস কে সিনহা বইয়ের পান্ডুলিপির পরিমার্জন/পরিবর্ধনের কাজ শেষ করেছেন। কিন্তু বইয়ের মূল লেখক হচ্ছেন ড: কামাল হোসেন, যুক্তরাষ্ট্রের ইলিয়নস ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক আলী রিয়াজ ও প্রথম আলোর সাংবাদিক মিজানুর রহমান খান। তবে প্রথম আলোর প্রথমা প্রকাশনীর নাম ব্যবহার না করে অন্য কোন প্রকাশনীর নাম ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বইতে এস কে সিনহা’র নাম ব্যবহার করার শর্তে মোটা অংকের অর্থ দিয়েছে জামাত।

 

অনুসন্ধানে জানা গেছে, মাস দুয়েক আগে কানাডা ছেড়ে সস্ত্রীক যুক্তরাষ্ট্রে গেছেন সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা। বসবাসের জন্য বেছে নিয়েছেন সিলেটি অধ্যুষিত নিউ জার্সির প্যাটারসনকে। সেখানে ১৭৯, জেসপার স্ট্রীট একটি বাসার গ্রাউন্ড ফ্লোরে তিনি থাকছেন। বাসা থেকে খুব একটা বের হন না তিনি। সারাদিন বইয়ের কাজ করছেন। প্রথম আলোর যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি ইব্রাহিম চৌধুরী খোকেনের মাধ্যমে ইতিমধ্যে ঢাকা থেকে বইয়ের ২০টি ফাইল পাঠানো হয় প্রায় এক মাস আগে। ইতিমধ্যে তিনি ১৫টি ফাইলের কাজ শেষ করেছেন। গত ৩রা আগষ্ট শুক্রবার যুদ্ধাপরাধের দায়ে ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত আসামী মীর কাশেম আলীর ভাই মীর মাসুম প্যাটারসন গিয়ে এস কে সিনহা’র সাথে সাক্ষাত করেন। সূত্র জানায়, এসময় সিনহাকে ৫০ হাজার ডলার দেন মীর মাসুম। এসময় মীর মাসুমের সঙ্গে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের টাইম টেলিভিশন ও বাংলা পত্রিকার সম্পাদক আবু তাহের। এছাড়াও সাথে ছিলো সাংবাদিক মুনির হায়দার। এই অর্থ লেনদেন হয় , এ মাসের ৩ তারিখ ৫৫-৫৬ বে সাইড কুন্সে দন্ত চিকিৎসক ডাঃ বার্নাডের চেম্বারে। একাধিক সূত্র বিডিএস  নিশ্চিত করে, ৩ আগস্টের ডাঃ বার্নাডের চেম্বারের সিসিটভি দেখলে সেদিনের এই অর্থ বিনিময় দেখা যাবে। 
মীর মাসুম এর সাথে থাকা আবু তাহেরের আশ্রয়েই ইসরাইলের গোয়েন্দা কর্মকর্তা মেন্দি এন সাফাদী সজীব ওয়াজেদ জয়ের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রে ষড়যন্ত্র করেছিল। আর মীর কাশিম আলীর বিচার শুরু হওয়ার পর থেকেই মীর মাসুম পালিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান। বর্তমানে মীর মাসুম জামাতের সংগঠন মুসলিম ওম্মাহ (মুনা)’র প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে কাজ করেছেন।

 

প্রথম আলো’র সূত্রে জানা যায়, বইটির মূল লেখকের ভূমিকায় ড: কামাল হোসেন, প্রথম আলোর সাংবাদিক মিজানুর রহমান খান এবং ড: আলী রিয়াজ কাজ করলেও তারা প্রথমা প্রকাশনা থেকে বইটি বের না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ড: আলী রিয়াজ একসময় মাহমুদুর রহমান মান্নার সাথে বাসদের রাজনীতির সাথে জড়িত থাকলেও বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী। যুক্তরাষ্ট্রে আওয়ামী লীগ সরকারের বিরুদ্ধে তিনি বিএনপি জামাতের লবিস্ট হিসাবে কাজ করেছেন। তাকে দেশ থেকে সহায়তা করছেন চ্যানেল আইয়ের তৃতীয় মাত্রার উপস্থাপক জিল্লুর রহমান, মানবজমিন সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী ও বিএনপি নেতা জহির উদ্দিন স্বপন।

 

বর্তমানে এই বাসায় থাকেন এস কে সিনহা

                         (বর্তমানে এই বাসায় থাকেন এস কে সিনহা)

হলি আর্টিজানের ঘটনার দিনই ড: আলী রিয়াজ সিএনএনসহ বিদেশী গণমাধ্যমে সাক্ষাতকার দিয়ে বলেছিলেন, বাংলাদেশ পুরোপুরি এখন ব্যর্থ রাষ্ট্র। আওয়ামী লীগ সরকার বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করেছে।

 

প্রথমা প্রকাশনের নামে এই বই প্রকাশ না করার কারণ হিসেবে সূত্র বলেছে, ইতিমধ্যে প্রথম আলো-ডেইলি স্টার গ্রুপ বর্তমান সরকার বিরোধী হিসেবে পরিচিত। এর আগেও সাবেক মন্ত্রী এ কে খোন্দকার এবং তাজউদ্দিন আহমেদের মেয়ে শারমিন আহমেদের মেয়ে শারমিন আহমেদের আওয়ামী লীগ বিরোধী বই বের করে তারা বিতর্কিত। এখন এস কে সিনহার নামে বই প্রকাশ করলে জনগণ বিশ্বাস করবে না। তাই অন্য কোনো প্রকাশনী থেকে প্রকাশ করা হবে। অর্থায়ন করবে জামাত।